রবিবার, ২৬ মে ২০২৪, ১১:৫৮ পূর্বাহ্ন

জরুরী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি:
কুষ্টিয়া পোস্ট ডট কমের জন্য সারা দেশে জরুরী ভিত্তিতে বিভাগীয় প্রধান, জেলা, উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা career@kushtiapost.com ইমেইল এ সিভি পাঠাতে পারেন।

ধর্মীয় গ্রন্থ ছেঁড়ার অভিযোগে ভারতে যুবককে পিটিয়ে হত্যা

আন্তর্জাতিক ডেস্কঃ

শিখদের ধর্মীয় গ্রন্থ ‘গুরু গ্রন্থ সাহিব’ ছেঁড়ার অভিযোগে ভারতে ১৯ বছর বয়সী এক যুবককে পিটিয়ে হত্যা করা হয়েছে। দেশটির পাঞ্জাব প্রদেশের ফিরোজিপুরের একটি গুরুদ্বারে শনিবার (৪ মে) এই ঘটনা ঘটে।

নিহত ওই যুবকের নাম বকশিশ সিং। ধর্মীয় গ্রন্থের পাতা ছেঁড়ার পর তাকে জনতা ধরে প্রচণ্ড মারধর করে বলে জানিয়েছেন পুলিশের ডিএসপি সুখিন্দর সিং।

মারধরে নিহত ওই যুবকের বিরুদ্ধেই ধর্মীয় গ্রন্থকে অবমাননা করার অভিযোগে মামলা করা হয়েছে বলে জানিয়েছে সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি।

তবে এই যুবকের বাবা দাবি করেছেন, তার ছেলে মানসিক ভারসাম্যহীন ছিল এবং গত দুই বছর ধরে সে ওষুধ সেবন করছিল। যারা তার ছেলেকে পিটিয়ে হত্যা করেছে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার দাবি জানিয়েছেন তিনি।

স্থানীয়রা জানিয়েছেন বকশিশ আগে কখনো কোনো গুরুদ্বারে যায়নি।

পবিত্র গ্রন্থের পাতা ছেঁড়ার পর বকশিশ পালিয়ে যাওয়ার চেষ্টা করে বলে দাবি করেছেন স্থানীয়রা। যখন এ খবরটি আশপাশে ছড়িয়ে যায় তখন গ্রামবাসী জড়ো হয়ে তাকে মর্মান্তিকভাবে মারধর করে।

সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে প্রকাশিত একটি ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে, বকশিশকে বেঁধে রাখা হয়েছে এবং তার শরীর থেকে রক্ত ঝরছিল।

পুলিশ পরবর্তীতে তাকে একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যায়। পরে সেখানে তার মৃত্যু হয়।

শিখদের এক ধর্মীয়গুরু কোনো গুরুদ্বারে ওই যুবকের শেষকৃত্য সম্পন্ন না করতে নির্দেশনা দিয়েছেন। সঙ্গে তার পরিবারকে একঘরে করে দেওয়ার কথাও বলেছেন। ওই ধর্মগুরু দাবি করেছেন, তাদের পবিত্র গ্রন্থকে যারা অবমাননা করছেন তাদের বিরুদ্ধে আইন-শৃঙ্খলারক্ষাকারী বাহিনী কোনো ধরনের পদক্ষেপ না নেওয়ায় সাধারণ মানুষ নিজ হাতে আইন তুলে নিতে বাধ্য হচ্ছেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Crafted with by Softhab Inc © 2021
error: আমাদের এই সাইটের লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা যাবে না।