বৃহস্পতিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪, ০৫:২৭ অপরাহ্ন

জরুরী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি:
কুষ্টিয়া পোস্ট ডট কমের জন্য সারা দেশে জরুরী ভিত্তিতে বিভাগীয় প্রধান, জেলা, উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা career@kushtiapost.com ইমেইল এ সিভি পাঠাতে পারেন।
সংবাদ শিরোনাম :
রোনালদোর গোলে চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে আল নাসর টিপু-প্রীতি হত্যা মামলায় অভিযোগ গঠন শুনানি পিছাল জাহাঙ্গীরনগর ইউনিভার্সিটি ডিবেট অর্গানাইজেশনের নবীনবরণ ও বিতর্ক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হলিউডে অভিষেক হচ্ছে ওবামাকন্যা মালিয়া পঞ্চগড়ে মানসিক ভারসাম্যহীন নারীর মরদেহ উদ্ধার চ্যাম্পিয়ন্স লিগ: রাতে মাঠে নামছে রেনে-এসি মিলান প্রধানমন্ত্রীকে ইউরোপীয় কমিশনের প্রেসিডেন্টের অভিনন্দন রাজবাড়ীতে ওয়াজ মাহফিলে যাওয়ার পথে ব্যবসায়ীকে কুপিয়ে হত্যা পাবনায় অটোরিকশা-প্রাইভেটকারের সংঘর্ষে নিহত ১, আহত ৫ এমপিওভুক্ত শিক্ষকদের অবসরভাতা দিতে সময় বেঁধে দিল হাইকোর্ট

প্রবাসীকে কুপিয়ে ১৩ লাখ টাকা লুট

বরগুনা প্রতিনিধিঃ

বরগুনার সদর উপজেলায় এক প্রবাসীকে কুপিয়ে ১৩ লাখ টাকা লুট করে আরও একজনকে পিটিয়ে দুই পা ভেঙে দেয় দুষ্কৃতীরা

বুধবার (৭ ফ্রেব্রুয়ারি) সকালে উপজেলার কেওড়াবুনিয়া ইউনিয়নের ঘটবাড়িয়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী প্রবাসীদের নাম-  মনির হোসেন (৩০) ও কবির হোসেন (৪০)। তারা একই এলাকার চাঁন মিয়ার (৬৫) ছেলে। এ ঘটনায় চাঁন মিয়া বরগুনা সদর থানায় একটি মামলা করেছেন। 

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, প্রবাসী কবির হোসেন দীর্ঘ দিন ধরে মালদ্বীপে জ্বালানি তেল কোম্পানিতে কাজ করতেন। ১৮ বছর পর দেশে ফিরে তিনি বরগুনা পৌরসভার চরকলোনী এলাকায় জমি কেনার প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। বুধবার ৭ ফেব্রুয়ারি সকালে জমি কেনার জন্য নগদ ১৩ লাখ টাকা নিয়ে বরগুনার উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলেন। এ সময় একই এলাকার লাল মিয়ার ছেলে ইব্রাহিম হাং (৩৮), তোতা হাং (৩৫) ও তার সহযোগীরা প্রবাসী কবিরের ওপরে অতর্কিত হামলা চালিয়ে মাথায় জখম করে ১৩ লাখ টাকা লুট করে। এতে কবিরের ছোট ভাই মনির হোসেন বাঁধা দিলে তাকে পিটিয়ে দু’পা ভেঙে দেয় দুষ্কৃতীরা। 

পরে স্থানীয়রা আহতদের উদ্ধার করে বরগুনা সদর হাসপাতালে ভর্তি করে। এদের মধ্যে মনির হোসেনের অবস্থা গুরুতর হওয়ায় তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশাল শেরে বাংলা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এ বিষয়ে চাঁন মিয়া বলেন, আমার ছেলে ১৮ বছর পর বিদেশ থেকে দেশে ফিরে বুধবার জমি কিনতে ১৩ লাখ টাকা নিয়ে বরগুনা যাচ্ছিল। এ সময় একই এলাকার ইব্রাহিম, তোতা, সুমনসহ কয়েকজন আমার ছেলের ওপর হামলা চালায়। আমার ছোট ছেলে বাঁধা দিতে এলে তাকেও পিটিয়ে পা ভেঙে দেয়। আমি এ ঘটনার বিচার চাই। 

বরগুনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা কেএম মিজানুর রহমান বলেন, এ ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। আসামিরা পলাতক থাকায় তাদের গ্রেফতার করা সম্ভব হয়নি। তবে পুলিশ অভিযান চলমান আছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Crafted with by Softhab Inc © 2021
error: আমাদের এই সাইটের লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা যাবে না।