বৃহস্পতিবার, ২৩ মে ২০২৪, ১১:৫৫ অপরাহ্ন

জরুরী নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি:
কুষ্টিয়া পোস্ট ডট কমের জন্য সারা দেশে জরুরী ভিত্তিতে বিভাগীয় প্রধান, জেলা, উপজেলা ও বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি নিয়োগ চলছে। আগ্রহীরা career@kushtiapost.com ইমেইল এ সিভি পাঠাতে পারেন।

কোন বাঁধায় নারীকে আটকানো যাবে না’

চট্টগ্রাম প্রতিনিধিঃ

বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের চট্টগ্রাম বিভাগীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (১৩ অক্টোবর) দুপুরে চট্টগ্রাম মহানগরীর একটি রেস্টুরেন্টে এ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।

এতে প্রধান অতিথির বক্তব্যে দৈনিক আজাদী সম্পাদক এম এ মালেক বলেন, যেকোন কাজে লেগে থাকতে হবে। তবেই সফলতা আসবে। সাংবাদিকতায়ও নারীদের লেগে থাকতে হবে। অন্যান্য সময়ের থেকে এখন অনেক হাউজে নারী সাংবাদিকের অংশগ্রহণ বেড়েছে। সেই সংখ্যা আরও বাড়াতে হবে। নতুন তথ্য প্রযুক্তি আসার সাথে সাথে তা গ্রহণ করতে হবে। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে চলতে হবে। না হলেই যেকোন প্রতিষ্ঠান পিছিয়ে পড়বে।

নারীর অধিকার নিয়ে তিনি আরো বলেন, কেউ কাউকে অধিকার দেয় না। সবাইকে নিজের অধিকার আদায় করে নিতে হয়। তার জন্য সকল নারী সাংবাদিকদের অনেক পরিশ্রম করে যোগ্য হয়ে গড়ে উঠবে৷ তাহলে কোন বাঁধায় নারীকে আটকানো যাবে না।

উদ্বোধনী বক্তব্যে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্র (বিএনএসকে) সভাপতি নাসিমুন আরা হক মিনু বলেন, ‘সবাই বলছেন নারী সাংবাদিক কেন্দ্র আলাদা করে গঠক করা হয়েছে কেন। নারী- পুরুষ সকলে সাংবাদিক। আমরা দেখতে পায় অন্যান্য পেশা থেকে সাংবাদিকতা পেশার নারীর অংশগ্রহণ অনেক কম। এই ঝুঁকিপূর্ণ পেশায় নারীদের অংশগ্রহণ বাড়ানোর তাগিদ আমাদের। প্রতিটি হাউজে সেই উপস্থিতি যেন ৫০ শতাংশতে উন্নতি করতে পারি। তার প্রচেষ্টা করছে বিএনএসকে। নারী পুরুষ মিলে পরিবার-সমাজ- দেশ পরিচালিত হয়। তাহলে দেশ এগুবো।

এই পেশায় নারীদের অংশগ্রহণ বাড়াতে প্রতিটি প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়া ৩০ শতাংশ নিয়োগের দাবী আমাদের। তার জন্য সকলকে সম্পাদক মহলকে এগিয়ে আসতে হবে। তারা আন্তরিক হলে নারীদের অংশগ্রহণ বাড়বে। ‘

তিনি আরও বলেন, নারীরা এত বাঁধার মুখে তাও সব ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছেন। চট্টগ্রামের নারী সাংবাদিকদের বিভিন্ন প্রশিক্ষণ, নিয়োগে স্থানীয় প্রিন্ট এবং ইলেকট্রনিক মিডিয়াকে এগিয়ে আসার আহব্বান জানান।

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সভাপতি সালাউদ্দিন রেজা বলেন, ‘সাংবাদিক পেশা অনেক ঝুঁকিপূর্ণ পেশা। তাও নারীদের অংশগ্রহণ বাড়ছে। কিন্ত তারা লেগে থাকতে চান না। এক পর্যায়ে তারা ঝরে যান। আমরা চাই এই মহান পেশায় নারীদের সাংবাদিকদের অংশ গ্রহণ বাড়ুক। ‘

চট্টগ্রাম প্রেস ক্লাব সাধারণ সম্পাদক দেবদুলাল ভৌমিক বলেন, নারী – পুরুষ সাংবাদিক বলে কিছু নেই। দেশের অন্যান্য বিভাগ এর মতো চট্টগ্রামে নারী সাংবাদিক বাড়ছে। নারীরা সব ক্ষেত্রে এগিয়ে যাচ্ছে। তবে আরও বেশি চ্যালেঞ্জ নিতে হবে। বর্তমানে নারী সাংবাদিকদের আটকানোর কেউ নেই। তবে নারী সাংবাদিকদের সহকর্মীদের সহোযোগিতাপূর্ণ আন্তরিক মনোভাবাপন্ন হতে হবে। এখন সহকর্মী আরেক সহকর্মীকে নামাতে সদা ব্যস্ত হয়ে পড়েন। এটা হলে কখনো এগুনো যাবে না। তাই নারী সাংবাদিকদের এগিয়ে যেতে সহকর্মীদের ভূমিকা অনস্বীকার্য। ‘

চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক বলেন, ‘চট্টগ্রামে অতীতে নারী সাংবাদিক উপস্থিতি অনেক কম ছিলো। বর্তমানে তা দিন দিন প্রসারিত হচ্ছে। তারাও পুরুষের সাথে তাল মিলিয়ে কাজ করছে। এই অংগ্রহণ আরও বাড়ুক।’

অনুষ্ঠানে সঞ্চালক করেন দীপ্ত টিভির চট্টগ্রাম বুরো প্রধান লতিফা আনসারী রুনা এবং দৈনিক বাংলা চট্টগ্রাম বুরো প্রধান ডেইজি মওদুদ।

সম্মেলন শেষে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্র (বিএনএসকে) এর চট্টগ্রাম বিভাগীয় ১১ সদস্যর একটি কমিটির ঘোষণা করা হয়।

এতে বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের চট্টগ্রাম বিভাগের এগারো বিশিষ্ট কার্য নির্বাহী কমিটি-সভাপতি-ডেইজী মউদুদ, সহ-সভাপতি -শামীম আরা লুসি, সহ-সভাপতি -ইয়াসমিন রীমা, সাধারণ সম্পাদক-লতিফা আনসারী রুনা, যুগ্ম সম্পাদক -চিংমেপ্রু মারমা,সাংগঠনিক সম্পাদক -ফেরদৌস লিপি। অর্থ সম্পাদক -শারমিন সুমি, প্রচার প্রকাশনা সম্পাদক -নিলা চাকমা। সদস্য -১. ইয়াসমিন ইউসুফ, ২. আসমা বিথি ৩.মরিয়ম জাহান মুন্নি ৪. মারজান আক্তার।

সম্মেলনে চট্টগ্রাম প্রেসক্লাব ও চট্টগ্রাম সাংবাদিক ইউনিয়নের নেতৃবৃন্দ ছাড়াও বাংলাদেশ নারী সাংবাদিক কেন্দ্রের সভাপতি নাসিমুন আরা হকসহ চট্টগ্রাম বিভাগের বিভিন্ন জেলায় ইলেকট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ায় কর্মরত নারী সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।

নিউজটি শেয়ার করুন

এই ওয়েবসাইটের কোনো লেখা, ছবি, অডিও, ভিডিও অনুমতি ছাড়া ব্যবহার বেআইনি।
Crafted with by Softhab Inc © 2021
error: আমাদের এই সাইটের লেখা অনুমতি ছাড়া কপি করা যাবে না।